আগৈলঝাড়ায় নববধূর মৃত্যুতে মামলা দায়ের স্বামী, দেবর, শ্বাশুরীসহ তিনজন গ্রেফতার

এস এম শামীম, আগৈলঝাড়া
দক্ষিণ বাংলা শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধিঃ
বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক নববধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এঘটনায় নববধূর ভাই বাদী হয়ে স্বামীসহ ৫জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে স্বামী, শ্বাশুরী ও দেবরকে গ্রেফতার করেছে।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের কোদালধোয়া গ্রামের কালীপদ বালার ছেলে আকাশ বালার সাথে গত ছয় মাস পূর্বে পাশ্ববর্তি গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার লাখন্ডা গ্রামের নিত্যানন্দ মন্ডলের মেয়ে লতিকা মন্ডলের (২০) সামাজিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী ও শ্বশুর পরিবারের লোকজন বিভিন্ন অযুহাতে নববধূ লতিকার সাথে অশোভন আচরন করা শুরু করে। এক পর্যায়ে তাদের খারাপ আচরণ ও মানসিক নির্যাতনের কারণে বাধ্য হয়ে বুধবার রাতে ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে লতিকা। মুমূর্ষ অবস্থায় লতিকাকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিলে সেখানে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চিকিৎসকেরা লতিকাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তবে লতিকার স্বামী ও তার পরিবার সদস্যরা লতিকাকে বরিশাল না নেয়ায় বুধবার রাতে উপজেলা হাসপাতালে নববধূ লতিকা মারা যায়। খবর পেয়ে ওসি (তদন্ত) মাজহারুল ইসলাম ও এসআই মিজানুর রহমান হাসপাতাল থেকে নববধূ লতিকার লাশ উদ্ধার করেন এবং সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন। এঘটনায় নববধূ লতিকার ভাই বিমল মন্ডল বাদী হয়ে তার বোনকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে স্বামী আকাশ বালা, শ্বাশুরী শুশীলা বালা, দেবরসহ ৫জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-১৬। (২৩/১২/২০২০)। মামলা দায়েরের পরে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই এসআই মিজান অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত স্বামী আকাশ, শ্বাশুরী শুশীলা ও দেবর পলাশসহ তিন জনকে গ্রেফতার করেছে। নববধূ লতিকার লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হবে বলেও জানান এসআই মিজান।


আরো নিউজ