আগৈলঝাড়ায় প্রশাসন, সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ ১হাজার ৬শত ৮৪ জনের করোনার টিকা গ্রহন

এস এম শামীম, আগৈলঝাড়াঃ
দক্ষিণ বাংলা বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে করোনার টিকা নিতে উপজেলা হাসপাতালে উপচে পরা ভিড় লক্ষ করা গেছে। গত কয়েকদিনে টিকা কার্যক্রম দেখে এবং এর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না থাকায় উদ্বুদ্ধ হয়ে বিভিন্ন শ্রেণীর লোকজন উপজেলা হাসপাতালে করোনার টিকা নিতে ভিড় করছেন। উপজেলা হাসপাতালে করোনা ভাইরাসের টিকা প্রয়োগের ১০ম দিনে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ ১হাজার ৬শত ৮৪ জন করোনার টিকা গ্রহন করেছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত ৭ ফেব্রুয়ারী কোভিড-১৯ টিকা কার্যক্রমের ১ম দিনে ১৮ জন, ৮ ফেব্রুয়ারী ২য় দিনে ১৬ জন, ৯ ফেব্রুয়ারী ৩য় দিনে ৩০ জন, ১০ ফেব্রুয়ারী ৪র্থ দিনে ১০৬ জন, ১১ ফেব্রুয়ারী ৫ম দিনে ২২০জন, ১৩ ফেব্রুয়ারী ৬ষ্ঠ দিনে ২৩৭ জন, ১৪ ফেব্রুয়ারী ৭ম দিনে ২৫৮ জন, ১৫ ফেব্রুয়ারী ৮ম দিনে ২১০ জন, ১৬ ফেব্রুয়ারী ৯ম দিনে ২৬৮ জন ও ১৭ ফেব্রুয়ারী ১০ম দিনে ৩২০ জনসহ মোট ১ হাজার ৬শত ৮৪ জন ব্যক্তি কোভিড-১৯ টিকা গ্রহন করেছেন। বুধবার সকালে উপজেলা হাসপাতালে করোনার টিকা গ্রহন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ রইচ সেরনিয়াবাত, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল হাশেম, উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ মোঃ লিটন সেরনিয়াবাত, আগৈলঝাড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরদার হারুন রানা, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি সাইদুল সরদার, বাকাল ইউপি চেয়ারম্যান বিপুল দাস, গৈলা ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম টিটু, আওয়ামীলীগ নেতা ফরহাদ তালুকদার, যুবলীগ নেতা ফয়জুল সেরনিয়াবাতসহ প্রমুখ। টিকা নিতে আসা উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ রইচ সেরনিয়াবাত, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবুল হাশেম ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আবু সালেহ মোঃ লিটন সেরনিয়াবাত জানান, টিকা গ্রহনের সময় তেমন কোন ব্যথা পাওয়া যায় না। নেই কোন রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও। কোভিড-১৯ টিকা নিয়ে করোনা থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখার কথাও বলছেন তারা। টিকা নিয়ে প্রয়োগের ভয়ভীতি যতটুকু ছিল, এখন তা একেবারেই নেই বলে জানান স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। তাই মানুষ এখন উৎসবমুখর পরিবেশে স্বপ্রনোদিত ভাবে টিকা নিচ্ছে। দিন যতই যাচ্ছে ততই মানুষ উৎসবমুখর পরিবেশে স্বাস্থ্যবিধি মেনে উপজেলা হাসপাতালের টিকা কেন্দ্রে এসে টিকা নিচ্ছেন।


আরো নিউজ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: JPHOSTBD