উচ্ছেদ অভিযান কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে নয় : মেয়র তাপস

ডেস্ক রিপোর্ট
দক্ষিণ বাংলা বুধবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২০
উচ্ছেদ অভিযান কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে নয় : মেয়র তাপস

রাজধানীর ফুলবাড়িয়া সুপারমার্কেট-২ এ নকশা বহির্ভূত দোকান উচ্ছেদে চলমান অভিযান কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে নয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেন, ওই উচ্ছেদ অভিযান অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে। কোনোভাবেই এই কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) ডিএসসিসির ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসাবো বালুর মাঠ সংলগ্ন এলাকায় বর্জ্য স্থানান্তর কেন্দ্রের (এসটিএস) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তাপস।

গতকাল (মঙ্গলবার) নকশা বহির্ভূত দোকান বরাদ্দ দিয়ে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সাবেক ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকনসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার আবেদন করেন ফুলবাড়িয়া সুপারমার্কেট-২ এর দোকান মালিক সমিতির সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলু। বুধবার এই মামলা গ্রহণ করে তা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

তবে মঙ্গলবার আদালতে মামলার আবেদনের পর সাঈদ খোকন জাগো নিউজকে বলেছিলেন, ‘সবাই বলছে, বর্তমান মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলুকে দিয়ে সব নোংরামি করছেন। এতে করে তার (তাপস) নিজের ও দলের ইমেজ ক্ষুণ্ন হচ্ছে।’

সাঈদ খোকনের এই বক্তব্যের পর আজ কোনো ব্যক্তির নাম উল্লেখ না করে মেয়র তাপস বলেন, ‘আমি আবারও খুব পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আমাদের এই অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ কার্যক্রম কোনো ব্যক্তি কেন্দ্রিক না। কোনো ব্যক্তি যদি এতে হেয় প্রতিপন্ন হন, লজ্জিত হন, সেটা ওই ব্যক্তির বিষয়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরশনের বিষয় নয়।’

অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ কার্যক্রম চলমান থাকবে জানিয়ে দিয়েছে মেয়র বলেন, কোনোভাবেই এই কার্যক্রমকে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না। আমরা কোনোভাবেই আপস করব না।

নকশা অবৈধ দোকান উচ্ছেদে গত ৮ ডিসেম্বর থেকে রাজধানীর ফুলবাড়িয়া সুপারমার্কেট-২ এ অভিযান চালাচ্ছে ডিএসসিসি। সংস্থাটি জানিয়েছে, নকশা অনুযায়ী এই মার্কেটে দুই হাজার ২৮৪টি দোকান থাকার কথা। কিন্তু গত কয়েক দশকে সেখানে নকশা বহির্ভূত ভাবে ৯১১টি দোকান নির্মাণ করা হয়েছে। এসব দোকানকে বৈধতা দিতে চেষ্টা করেছিলেন সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন।


আরো নিউজ