ছেলের জন্য তাবিজ আনতে গিয়ে ‘লালসার শিকার’ মা

ডেস্ক রিপোর্ট
দক্ষিণ বাংলা শুক্রবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২১
ছেলের জন্য তাবিজ আনতে গিয়ে ‘লালসার শিকার’ মা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় ছেলের জন্য তাবিজ আনতে গিয়ে খানকা শরীফের তত্ত্বাবধায়কের ‘লালসার শিকার’ হয়ে অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন এক প্রবাসীর স্ত্রী। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় অভিযুক্ত মাওলানা সিরাজুল ইসলামকে (৪৮) আটক করা হয়েছে। পুলিশ বলছে, প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

অভিযুক্ত সিরাজুল হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার বড়গাঁ গ্রামের মৃত আশিকুল ইসলামের ছেলে।

নবীনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর রশিদ জানান, নবীনগর উপজেলার ভোলাচং গ্রামের বাসিন্দা ওই প্রবাসীর স্ত্রী তার ছেলের জন্য তাবিজ আনতে শ্রীরামপুর গ্রামের আবু উলাইয়া খানকা শরীফ যান। সেখানকার তত্ত্বাবধায়ক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম মানুষজনকে বিভিন্ন রোগের জন্য তাবিজ দিতেন এবং ঝাড়ফুঁক করতেন। তাবিজের জন্য ওই প্রবাসীর স্ত্রীরও খানকা শরীফে আসা-যাওয়া ছিল।

ওসি আরও জানান, খানকা শরীফের তত্ত্বাবধায়কের লালসার শিকার হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়েছেন—স্থানীয়দের মধ্যে এমন কানাঘুষা শুরু হলে পুলিশ বৃহস্পতিবার সিরাজুলকে আটক করে। প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।


আরো নিউজ