বাউফলে ঘোষিত ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নেতা-কর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ

রিয়াজ মাহমুদ, পটুয়াখালী প্রতিনিধি
দক্ষিণ বাংলা সোমবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২০
বাউফলে ঘোষিত ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নেতা-কর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ

কেন্দ্রীয় কমিটির নিয়মনীতিকে উপক্ষো করে পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা ও পৌর শাখা ছাত্রদলের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা করায় তীব্র ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বর্তমান ও সাবেক ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা। রোববার সন্ধ্যায় মোঃ মুজাহিদুল ইসলাম কে আহব্বায়ক ও মোঃ মিজানুর রহমানকে সদস্য সচিব করে মোট ২১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা ছাত্র দলের এবং আবদুল্লাহ আল ফাহাদকে আহব্বায়ক ও সাদেকুজ্জামান রাকিবকে সদস্য সচিব করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট পৌর ছাত্রদলের নতুন দুইটি কমিটিতে স্বাক্ষর করে অনুমোদন দেন পটুয়াখালী জেলা ছাত্র দলের সভাপতি মোঃ শফিউল বাশার উজ্জ্বল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল হেলাল নয়ন। আগামী ৬০ দিনের মধ্যে ছাত্রদলের পূনাঙ্গ কমিটি গঠন করে জেলায় জমা দেয়ার জন্যও বলা হয়েছে।

কমিটি ঘোষণার সাথে সাথে ওই কমিটি প্রত্যাখান করেছেন উপজেলা ও পৌর ছাত্রদলের পদবঞ্চিত ও ত্যাগী নেতা-কর্মীরা। বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে ছাত্রদলের তৃর্নমূল পর্যায়ের কর্মীদের মাঝেও। তাঁদের দাবী কেন্দ্র ঘোষিত নিয়মনীতি লংগন করে ও ত্যাগী নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন না করে বির্তকিতদের নিয়ে ছাত্রদলের নতুন আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। সাবেক উপজেলা ছাত্রদল নেতা শাহীন রেজা বলেন, সদ্যঘোষিত উপজেলা কমিটির আহব্বায়কের বিরুদ্ধে জামায়াত শিবিরের রাজনীতি করার প্রমানসহ একটি লিখিত আবেদন জমা দেয়া হয়েছিল জেলা কমিটির কাছে কিন্তু তাদের সেই লিখিত আবেদন আমলে নেয়া হয় নাই।

কমিটির সদস্য সচিব মিজানুর রহমান বিবাহিত তার কামিন নামার কপি এবং শশুরবাডীর লোকজনের সাক্ষাতকারের অডিও ভিডিও ক্লিপ সংশ্লিষ্টদের কাছে জমা দিলেও তারা এই বিষয়টি আমলে নেন নি। এছাড়া পৌর কমিটির সদস্য সচিবসহ একাধিক সদস্য বিবাহিত, একজন সদস্যের বিরুদ্ধে বাউফল থানায় মাদকের মামলাও রয়েছে। কমিটির একাধিক যুগ্ম আহব্বায়ক সহ কয়েকজন সদস্য ঢাকায় স্থায়ী ভাবে বসবাস ও ব্যাবসা করেন। সদ্য ঘোষিত কমিটির বিষয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন ছাত্রদলের সাধারন কর্মী ও সমার্থকরাও। কমিটির গঠনে ত্যাগী ও নির্যাযিত নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন না করায় হতাশা প্রকাশ করেছেন বিএনপি দলীয় সাবেক এমপি শহিদুল আলম তালুকদার।

তিনি বলেন স্বাধীনতার পর থেকে এই আসনের আমি একমাত্র এমপি, গত সংসদ নির্বাচনে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে বিএনপি থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ছাত্র দলের কমিটি গঠনের ক্ষেত্র আমার সুপারিশ গ্রহন করা হয় নি, যা খুবই দু:জনক। ছাত্রদলকে চাঙ্গা করতে এখনই ঘোষিত কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করে ত্যাগী ও সক্রিয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে পুনরায় কমিটি গঠন করা হোক।


আরো নিউজ