ব‌রিশা‌লে মাহ‌ফিলগামী বাস ও অ‌্যাম্বু‌লেন্সের সংঘ‌র্ষে নবজাতক নিহত, আহত ৭

ডেক্স রিপোর্ট
দক্ষিণ বাংলা সোমবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের রামপ‌ট্রি এলাকায় বাস ও অ্যাম্বুলেন্সের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৩ দিনের এক নবজাতক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের চালক-হেলপার, নিহত শিশুটির মা-চাচা, নানীসহ আরো ৭ জন গুরুত্বর আহত হয়েছেন ব‌লে জানা গে‌ছে। আহত‌দের উদ্ধার ক‌রে ব‌রিশাল শের ই বাংলা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছে।

সোমবার দুপুর দেড়টার দি‌কে বাবুগঞ্জ উপ‌জেলার রামপ‌ট্রিতে এই দুর্ঘটনা ঘ‌টে।

স্থানীয় ও আহতদের সূত্রে জানাগেছে জানান, ঘটনার সময় অ‌নিক প‌রিবহ‌নের যাত্রীবাহি বাসটি ফরিদপুর থেকে বরিশালের চরমোনাই মাহফিলের উদ্দেশ্যে যাত্রীদের নিয়ে আসছিলো। আর অ্যাম্বুলেন্সটি শের ই বাংলা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতাল থেকে নবজাতক শিশুর সা‌থে তার
স্বজনদের নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো। হঠাৎ করে এ দুটি যানবাহনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

স্থানীয়রা জানান, এতে অ্যাম্বুলেন্সটির ভেতরে থাকা ৩ দিনের নবজাতক শিশুটি ঘটনাস্থলেই মারা যায়। এছাড়া শিশুটির মা শাহানা আক্তার জুই, তার মা
শাহিনুর বেগম, ভাসুর সাগর, খালা শাশুড়ি ফিরোজা, অ্যাম্বুলেন্সের চালক
রেজাউল, হেলপার জহির ও রিমন নামে ৭ জন গুরুত্বর আহত হয়।

ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সহায়তায় আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শের ই বাংলা
মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

হাসপাতালে নবজাতকের স্বজনরা জানান, শাহানা আক্তার জুই এর গ্রামের বাড়ি বরগুনার আমতলীতে। ১ বছর আগে তার সাথে বরগুনা সদরের ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ব্যবসায়ী সৈকতের সাথে বিবাহ হলে তারা পরিবার নিয়ে সেখানেই থাকতেন। সন্তান প্রসব জনিত কারণে তারা বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি হয়। নবজাতক শিশুটির শারিরীক সমস্যার কারনে তাকে জন্মের পর ২০ ফেব্রুয়ারি শেবাচিম হাসপাতালের নবজাতক ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে আজ স্বজনরা শিশুটিকে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিলো।

শিশুটির মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে এয়ারপোর্ট থানার ওসি জাহিদ বিন আলম জানান, দুর্ঘটনার পর বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। এদিকে অ্যাম্বুলেন্সে থাকা শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। বাকী
আহতদের মধ্যে ২/১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক রয়েছে।


আরো নিউজ
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: JPHOSTBD