ভালায় বাফুফের বয়স ভিত্তিক ফুটবল খেলোয়াড় বাছাই কার্যক্রম

মোকাম্মেল হক মিলন, ভোলা
দক্ষিণ বাংলা মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
ভালায় বাফুফের বয়স ভিত্তিক ফুটবল খেলোয়াড় বাছাই কার্যক্রম

তৃনমূল থেকে ফুটবল খেলোয়াড় বাছাই এর কার্যক্রম এর অংশ হিসাবে ভোলায় বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) এর আয়োজনে অনুর্ধ্ব-১৫ ফুটবলার বাছাই এর ২ দিন ব্যাপী কার্যক্রম শুরু হয়েছে।সোমবার ভোলা গজনবী স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠাকি ভাবে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন ভোলা জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম ছিদ্দিক। জেলা পর্যায় থেকে খেলোয়াড় বাছাই করে পরবর্তিতে বরিশাল বিভাগীয় পর্যায়ে চুড়ান্ত বাছাই করা হবে। পরে এই খোয়াড়ারদের নিয়ে দীর্ঘ মেয়াদি ক্যাম্প করা হবে। এখান থেকেই ভবিষৎতের জাতীয় বয়স ভিত্তিক টুর্নামেন্টে খেলোয়াড়রা জাতীয় দলের প্রতিনিধিত্ব করবে। এ সময় জেলা ও উপজেলা থেকে ফুটবল খেলোয়াড়রা বাছাই কার্যক্রমে অংশ নেন এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খেলার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সহযোগিতায় বাছাই এর কার্যক্রমে জেলার শতাধিক প্রতিভাবান খেলোয়াড় এতে অংশ নেয়। বাফুফের উদ্যোগে সারাদেশ থেকে বয়স ভিত্তিক প্রতিভাবান খেলোয়াড় বাছাই করা হবে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে পারদর্শী ও যোগ্য ফুটবলার খুঁজে বের করে তাদের উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। এ সময় খোলোয়াড় বাছাই করেন বাফুফের ফুটবল কোচ মো: জামাল হোসেন ও আফজাল হোসাইন ।

খোলোয়াড় বাছাই কার্যক্রমে ভোলা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি মো: ফয়ছাল, সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম গোলদার,সাধারন সম্পাদক ইয়ারুল আলম লিটন, সহকারী সাধারন সম্পাদক মুনতাসির আলম চৌধুরী রবিন, কোষাধক্ষ্য কামাল হোসেন সহ আরো অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

সকলা থেকেই যেন ভোলায় গজনবী স্টেডিয়ামে ক্ষুদে ফুটবল খেলোয়াড়দের মিলনমেলায় পরিনয় হয়। উৎসবের কারন বয়স ভিত্তিক অনুর্ধ্ব-১৫ ফুটবলার বাছাই। জেলার ৭ উপজেলা থেকে শতাধিক খেলোয়াড় অংশ নেয় এই বাছাই কার্যক্রম এ। তারা এর মাধ্যমে স্বপ্ন দেখছেন ভবিষ্যৎতে জাতীয় দলে খেলার। আর বাফুফের এই ধরনের কার্যক্রমকে অংশ নিতে পেরে খুশী অনেক খেলোয়াড়। শুধু তাই নয় অনেক অভিভাবকরা তার সন্তানকে নিয়ে এসেছেন মাঠে ভবিষ্যতের স্বপ্ন পূরন করতে। মাঠে দেখছেন ছেলের খেলা। খেলোয়াড়দের বিভিন্ন ম্যাচ এর মাধ্যমে বাছাই করা হবে বলে জানান বাফুফের নিয়োজিত কোচ। বাফুফের ফুটবল কোচ আফজাল হোসাইন বলেন,সারাদেশ থেকে আমরা বয়স ভিত্তিক প্রতিভাবান খেলোয়াড় বাছাই করছি। প্রথম পর্যায়ে আমরা জেলা পর্যায়ে বাছাই করছি । তারপরে বিভাগীয় পর্যায়ে বাছার এর পর জাতীয় পর্যায়ে তাদের ক্যাম্পে ডাকা হবে। যারা চূড়ান্ত বাছাইয়ে টিকবেন তাদেরকে একাডেমীতে রেখে উন্নত প্রশিক্ষণ দিয়ে ফিফা এবং এএফসি কাপের যেসব খেলা হবে সেখানে দল পাঠানো হবে। এখান থেকেই বিভিন্ন দল গড়ে উঠবে বলে জানায় বাফুফে।


আরো নিউজ