মোংলা বন্দরে ছয় মাসে জাহাজ এসেছে ৫২২টি, আমদানি রপ্তানির প্রবৃদ্ধি বাড়ছে

মনির হোসেন,মোংলা
দক্ষিণ বাংলা শনিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২১
মোংলা বন্দরে ছয় মাসে জাহাজ এসেছে ৫২২টি, আমদানি রপ্তানির প্রবৃদ্ধি বাড়ছে

মোংলা বন্দরের উন্নয়নে গৃহিত প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের কারনে বন্দরে বাণিজ্যিক জাহাজ আগমনের সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। সেই সাথে বাড়ছে আমদানি রপ্তানির প্রবৃদ্ধি। বন্দর ব্যবহারকারীদের দ্রুত ও দক্ষ সেবা প্রদানের মাধ্যমে মোংলা হয়ে উঠেছে একটি উন্নত মানের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান।
বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে মোংলা বন্দরে মোট বাণিজ্যিক জাহাজ এসেছে ৫২২ টি। শুধুমাত্র ডিসেম্বর মাসেই জাহাজ এসেছে ১১৭টি। সূত্রটি আরো জানায় বন্দর চ্যানেলের আউটার বারে ডিসেম্বর মাসেই ৭১২ কোটি ৫০ লাখ ব্যয়ে ড্রেজিং সম্পন্ন হয়েছে। ফলে ওই চ্যানেল দিয়ে বড় বড় জাহাজ বন্দরে আসতে পারছে। ইতিমধ্যে পশুর চ্যানেলের ইনারবারে ৭৫৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ২১৫.০৬ লক্ষ ঘনমিটার ড্রেজিং কার্যক্রম শুরু করার জন্য নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর উপস্থিতিতে একটি চীনা প্রতিষ্ঠানের চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ বছর জানুয়ারী থেকে ২০২২ সালের জুনে পশুর চ্যানেলের ইনারবারের ড্রেজিং সম্পন্ন হবে। সরকারের অগ্রাধিকার ভিত্তিক এ প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত হলে বন্দরের জেটি পর্যন্ত ১০ মিটার ড্রাফটের জাহাজ হ্যান্ডলিংয়ের সুবিধা সৃষ্টি হবে। এতে বন্দরের সক্ষমতা বহুগুনে বৃদ্ধি পাবে। এবছর সেপ্টেম্বরে মোংলায় জাহাজ এসেছে ৮৩ টি, অক্টোবরে ৭৯ টি, নভেম্বরে ১০৬ টি ও ডিসেম্বরে ১১৭ টি। পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০০৯ – ২০১০ অর্থবছরে মোংলা বন্দরে মোট জাহাজ এসেছিল ১৫৬ টি। এক বছরে যেখানে জাহাজ এসেছে ১৫৬ টি সেখানে মাত্র ১০ বছরের ব্যবধানে ছয়মাসে এ বন্দরে ৫২২টি জাহাজ বন্দরে আগমন করেছে। বন্দর সংশ্লিষ্ট জানান, বিগত ১১ বছরে মোংলা বন্দরের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় এক সময়ের মৃত্য বন্দর আজ একটি লাভ জনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে।
চলতি বছরের অক্টোবর মাসে অতীতের সকল রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে মোংলা বন্দর। গত ২৫ অক্টোবর বন্দরের সবগুলো জেটিতে বিদেশী জাহাজে পূরিপূর্ণ ছিল। অর্থাৎ একই সংগে জেটিতে ৫টি জাহাজ বার্থিং করে মালামাল খালাস করেছে। এছাড়াও গত ২১ অক্টোবর থেকে রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের যন্ত্রপাতি ধাপে ধাপে মোংলা বন্দরের জেটি দিয়ে খালাসের কার্যক্রম সম্পন্ন হচ্ছে।

বর্তমানে মোংলা বন্দরে বিদেশী জাহাজ আগমন বেড়ে যাওয়া এবং রাজস্ব আয় বৃদ্ধির বিষয়টিকে বর্তমান সরকারের একটি অন্যতম সাফল্যে হিসেবেই দেখছেন বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম. শাহজাহান, এনপিপি, এনডিসি, পিএসসি,বিএন। তিনি বলেন, বন্দরের উন্নয়নে গৃহিত প্রকল্পগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের ফলে অপারেশনাল কার্যক্রম বৃদ্ধি পেয়েছে। বন্দরে বিদেশী জাহাজ আগমনের সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। আমদানি রপ্তানিকারকরা এখন এ বন্দর ব্যবহারে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছেন। বিশেষ করে গাড়ি আমদানিতে মোংলা বন্দরের গুরুত্ব বেড়েছে কয়েকগুন। মাওয়ায় পদ্মা সেতু চালু হলে আমদানি রপ্তানীতে শীর্ষ স্থান দখল করবে মোংলা বন্দর।


আরো নিউজ