২০০ টাকার জন্য গলাটিপে বৃদ্ধকে খুন

ডেস্ক রিপোর্ট
দক্ষিণ বাংলা শুক্রবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
২০০ টাকার জন্য গলাটিপে বৃদ্ধকে খুন

লক্ষ্মীপুরে লোকমান হোসেন (৬৩) নামে এক বৃদ্ধকে গলাটিপে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। পাওনা ২০০ টাকা না দেয়ায় খোরশেদ নামে এক অটোরিকশা মালিক তাকে হত্যা করেছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলার চররুহিতা ইউনিয়নের চররুহিতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত লোকমান চররুহিতা গ্রামর চৌকিদার বাড়ির বাসিন্দা। অভিযুক্ত অটোরিকশা মালিক খোরশেদ একই এলাকার সিরাজ উল্যা পালোয়ানের ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বৃদ্ধ লোকমান ভাড়ায় খোরশেদের অটোরিকশা চালাতেন। কিছুদিন আগে তিনি খোরশেদের রিকশা চালানো বন্ধ করে দেন। কিন্তু তার কাছ থেকে খোরশেদ ২০০ টাকা পেতেন। বৃহস্পতিবার ঘটনার সময় লোকমানকে সড়কে গতিরোধ করে পাওনা টাকা দাবি করেন খোরশেদ। টাকা পরে দেয়ার কথা বলতেই খোরশেদ তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে মাটিতে ফেলে দেন।

এক পর্যায়ে খোরশেদ বুকের উপর উঠে গলাটিপে লোকমানকে হত্যা করে। স্থানীয়রা এগিয়ে এলে খোরশেদ ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত লোকমানের চাচাতো ভাই মুরাদ হোসেন বলেন, আমার ভাইয়ের কাছ থেকে খোরশেদ ২০০ টাকা পেতো। রাস্তার উপর খোরশেদ টাকা চাইলে ১০০ টাকা করে আমার ভাই শুক্র ও সোমবার পরিশোধ করবে বলেছে। কিন্তু খোরশেদ এতে রাজি না হয়ে আমার ভাইকে গলাটিপে হত্যা করেছে।

লোকমানের ছেলে রাকিব হোসেন বলেন, খোরশেদ পাওনা টাকার জন্য নির্মমভাবে মেরে গলাটিপে আমার বাবাকে হত্যা করেছে। আমি বিচার চাই।

লক্ষ্মীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, ২০০ টাকা নিয়ে হাতাহাতি ঘটনায় বৃদ্ধের মৃত্যুর খবর শুনেছি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো নিউজ